গোধূলিলগ্নেই মানুষ বেশি প্রতিফলিত হয়ঃ মণি রত্নম

“সাফল্যের অহর্নিশ স্পর্শ পেতে পেতে যাঁরা এখনও ব্যর্থতার ঝুঁকি নিতে পারেন, মণি রত্নম তাঁদের একজন।” কথাটি আমার নয়, অস্কার জয়ী সুরকার এ আর রহমানের। ভারতের দক্ষিণী চলচ্চিত্রের প্রসঙ্গ এলেই হয়তো আদুর গোপালকৃষ্ণান বা অভিন্ন আখ্যা সর্বাগ্রে আসবে কিন্তু দক্ষিণী চলচ্চিত্রে মণি রত্নমের অবস্থান প্রকৃত অর্থেই সম্মোহন জাগানিয়া।

এ দেশের চলচ্চিত্রপ্রেমীদের কাছে মণি রত্নমের পরিচয় সম্ভবত নব্বই দশকের ‘রোজা’ ছবির মাধ্যমে। তামিল এ ছবির হিন্দি সংস্করণ বোধকরি এর মূল কারণ। মণি রত্নমের হিন্দি ভাষার ছবিতে প্রবেশ অবশ্য এরও প্রায় ছয় বছর পর, ১৯৯৮ সালে, ‘দিল সে’ ছবি দিয়ে। কান্নাড়া ছবি ‘পাল্লাভি আনু পাল্লাভি’ (১৯৮৩) দিয়ে পরিচালনার সুত্রপাত ঘটলেও প্রতীক্ষিত সাফল্য জোটে পঞ্চম ছবিতে এসে, ‘মৌনা রাগাম’ (১৯৮৬) তৈরির মাধ্যমে। তামিল চলচ্চিত্রে ছবিটির অনাড়ম্বর নির্মাণশৈলী কিংবা বাস্তবিক গল্পকথন সত্যিই বিস্ময়। সেই বিস্ময়কে আরও দীর্ঘ করে ‘নায়াগান’ (১৯৮৭) ছবির টাইম ম্যাগাজিনে ‘সর্বকালের সেরা ১০০ ছবি’তে অন্তর্ভুক্তি। ‘গীতাঞ্জলী’ (১৯৮৯), ‘বম্বে’ (১৯৯৫), ‘ইরুভার’ (১৯৯৭), ‘আলাইপায়ুথে’ (২০০০), ‘কান্নাথিল মুথামিত্তাল’ (২০০২), ‘যুবা’ (২০০৪) কিংবা ‘গুরু’ (২০০৭) ছবির দ্যুতিতে মণি রত্নম চেনা আঙ্গিনা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দ্যুতিময়।

মণি রত্নম নিজেই বলেন আমি মূলধারার চলচ্চিত্র নির্মাতা কিন্তু এ কথা হলফ করে বলে দেয়া যায়, প্রচলিত মূলধারার কোন উপাদানই তার ছবিতে সন্ধান করা অরণ্যে রোদন! এখানেই তিনি অনন্য। কিভাবে? মূলধারা এবং বিকল্পধারা নিয়ে চলচ্চিত্র-জিজ্ঞাসু মনের অস্পষ্টতাকে ছিন্নভিন্ন করে নতুন এক ধারার প্রণয়ন এনেছেন যাতে করে তাঁর ছবিকে কোনভাবেই মূল বা বিকল্পধারা বলে নির্দিষ্ট করা যাবে না। কেন জানি না, সেখানেই মণি রত্নমের জয়।

মণি রত্নম মুগ্ধতার পূর্ণাঙ্গ বিশ্লেষণ করার ক্ষমতা আমার নেই। সেই চেষ্টায় দাঁড়ি দিয়ে বরং চলুন এই সাক্ষাৎকারে মণিরত্নম যে একজন প্রকৃতি প্রেমী, দার্শনিক, বিচক্ষণ, আত্ম-সমালোচক, বিনয়ী, স্বল্পভাষী, প্রতিভাধর, দুঃসাহসী এবং সর্বোপরি একজন নিছক প্রতিভার পরিচয় উঠে এসেছে সেসব খোঁজার প্রয়াস চালাই –


‘আমি সূর্যাস্ত পছন্দ করি এবং এতেও একমত গোধূলিলগ্নেই মানুষ বেশি প্রতিফলিত হয়। নিস্তব্দতার সাথে সিদ্ধান্তে পৌছতে সহজ হয়’ – মণি রত্নম
– ভাবনা সুমাইয়া 

ভাষান্তরঃ আরিফ মাহমুদ


ভাবনা সুমাইয়া

একটি সূর্যাস্ত, এই পর্যবেক্ষণ আপনার প্রতিটি ছবিতেই একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে থেকেছে। আপনার সৃষ্ট চরিত্রদের নির্ণায়ক মুহূর্তগুলো এই সময়ে স্থিরতা পেয়েছে।

মণি রত্নম

(মৃদুহাস্য) এটি একটি ভাল পর্যবেক্ষণ বলতে পারেন। চিহ্নিতকরণও বলতে পারেন। আসলে, যতক্ষণ পর্যন্ত না এটি বের হয়ে আসে আমি এটা নিয়ে ভাবি না। হ্যাঁ, আমি সূর্যাস্ত পছন্দ করি এবং এতেও একমত গোধূলিলগ্নেই মানুষ বেশি প্রতিফলিত হয়। নিস্তব্দতার সাথে সিদ্ধান্তে পৌছতে সহজ হয়। আসলে, আমি ঘরোয়া লোক নই। সৃষ্টিকর্তাই হলেন শ্রেষ্ঠ শিল্প পরিচালক এবং প্রকৃতিতেই সেটি সবচেয়ে ভালো খুঁজে পাওয়া যায়, আমি সেই প্রকৃতিতেই গুরুত্বপূর্ণ দৃশ্যগুলো নিয়ে আসতে পছন্দ করি।

2-sunset

ভাবনা সুমাইয়া

এমনকি বৃষ্টিও মনে হয় আপনাকে আচ্ছন্ন করে। বিদ্যুৎ চমকের সাথে বৃষ্টিকে তুলে আনা আপনার প্রত্যেক ছবিতেই পাওয়া যায়।

মণি রত্নম

(হাসি) এটা ঠিক, বৃষ্টির শটগুলো বারবার এসেছে। সম্ভবত আমি বৃষ্টিও পছন্দ করি। এটা গল্পকে এগিয়ে নেয়। এমনকি ব্যক্তিগত জীবনেও, বৃষ্টিতে কাটানো মুহূর্তগুলো অন্য সব থেকে আলাদাভাবে স্মরণ করি। একজন পরিচালক হিসেবে, আমি শুধু ছবিটিকে ক্যামেরায় তুলে আনি, একজন সমালোচক যেভাবে এটা নিয়ে অধ্যয়ন বা বিশ্লেষণ করেন তা করি না। কিন্তু এখন আপনি এটাকে নির্দিষ্ট করতে পারেন, এমনকি বম্বে ছবিতে বৃষ্টি নিয়ে অনেক শট ছিল।

3-rain-bombay

ভাবনা সুমাইয়া

সমালোচকরা বলেন, আপনি সিনেমাজগতে সবচাইতে দুষ্প্রাপ্য একজন পরিচালক। আপনি কেন এত মিডিয়া-বিরোধী?

মণি রত্নম

আমি তাদের বিপক্ষ নই। আমি শুধু তাদের সাথে যুক্ত থাকার কিছু দেখি না। আমার সম্পর্ক আমার মাধ্যমের সাথে। তারা আমার কাজ নিয়ে তাদের পর্যালোচনা ও রায় জানায়। আমি এটার বিপক্ষ হবার কিছু দেখি না। এইসব দিনে আমি পরিবর্তিত হতে শিখেছি, কিন্তু সাক্ষাৎকার, আমি এখনও এটার কোন উদ্দেশ্য পাই না। আমার মতে, পরিচালকের ছবি তৈরি করাই কর্তব্য সেসব নিয়ে কথা বলা নয়।

ভাবনা সুমাইয়া

এমনকি তখনও না যখন তারা আপনার বম্বে ছবি নিয়ে বিতর্কে ছিল?

মণি রত্নম

আমি কি বলবো? আমি বিতর্ক চাই নি। ছবিটি মূলত পোঙ্গল সপ্তাহে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল কিন্তু আমাদের মার্চের ৩ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছিল। আমি অবশ্যই এই ধরণের অত্যাচার পছন্দ করি না কিন্তু কথা বাড়িয়েও এতে কোন সহায়তা হয় না। আসলে এটা সম্পর্কে যত বেশি জিজ্ঞেস করি, তত বেশি বিষণ্ণতা অনুভব করি। ছবিটি এখন মুম্বাই থিয়েটার থেকেও সরিয়ে নেয়া হয়েছে (দীর্ঘশ্বাস) । দয়াকরে অন্য কিছু নিয়ে কথা বলতে পারি?

ভাবনা সুমাইয়া

পেছনে ফিরছি, রোজা কেন সফল ছিল তা নিয়ে কি ভাবেন?

মণি রত্নম

এটি এমন প্রশ্ন কেবল দর্শকরাই এর উত্তর দিতে পারবে। বক্স-অফিস হিট নিশ্চিতকরণ কোন ফর্মুলা আজও আবিষ্কৃত হয়েছে বলে মনে করি না। সম্ভবত, রোজা একটি সময়োপযোগী ছবি ছিল। প্রত্যেকে তখন দেশপ্রেম মেজাজে ছিল এবং ছবিটি সেই ব্যাকুলতা তৈরি করতে পেরেছে।

6-roja

ভাবনা সুমাইয়া

অনেকেই মনে করেন যে ছবিটিতে প্রেম দৃষ্টিকোণকে কমিয়ে সন্ত্রাসবাদকে আরও প্রাধান্য দেয়া যেত

মণি রত্নম

মূল স্ক্রিপ্টটি সন্ত্রাসবাদ এবং ওই নিবদ্ধে আরও প্রাধান্য ছিল। ছবি এগিয়ে যাবার সাথে, আমাদের মনে হয়েছে এটি গম্ভীর মোড় নিচ্ছে এবং তাই কাশ্মীর উত্তেজনা কমিয়ে আনলাম এবং মানবিক দিক থেকে প্রাধান্য দিলাম। এখন ভাবি যদি পুরনো বিরোধ ধরে রাখতাম বরং ভালো হতো।

ভাবনা সুমাইয়া

আপনাকে আপনার কাজ থেকে পৃথক করা কতটা সহজ? প্রতিটি ছবির চিন্তা থেকে কখন সরে আসেন?

মণি রত্নম

পৃথকীকরণ একটি অনুশীলনের ব্যাপার। এটি ছবির মুক্তিতে বা হয়তো এর কিছু পূর্বে হতে পারে। ততদিনে আপনি আপনার ভালোবাসা শ্রমে ক্লান্ত।

ভাবনা সুমাইয়া

বেশিরভাগ হিন্দি ছবি সম্পন্ন হতে তিন বছর সময় নেয়

মণি রত্নম

(হাসি) আমি এটা শুনেছি। দক্ষিণে আমাদের এত বিলাসিতা করার সুযোগ নেই। আমাদের বেশিরভাগ ছবিই এক বছরের মধ্যে সম্পন্ন হয়।

ভাবনা সুমাইয়া

৯৩ এর দাঙ্গা নিয়ে ছবি তৈরিতে আপনাকে কি অনুপ্রাণিত করেছে এবং কি অদ্ভুত একজন মুম্বাইয়ের বাইরের লোকের এই ছবি করা উচিত?

মণি রত্নম

(দাঁড়ান) আমি একজন ভারতীয় এবং মুম্বাই সব ভারতীয়দের। হয়তো এই দূরত্বকে ঘাটতে প্রতিবেশী প্রদেশের প্রয়োজন। ছবিটি শুধু ৯৩ এর দাঙ্গা নিয়ে নয় বরং দেশের অবস্থা ওই মুহূর্তে কিসের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। ছবিটি একটি প্রজন্মের বেদনার্থ ক্রন্দন যা একটি পরিবারের মধ্য দিয়ে প্রতিফলিত হয়েছে সেটি মুম্বাই বা ভারতের যে কোন অংশভুক্ত হতে পারে। আমি এর আত্মগত মূল্যবিচারে বিরত ছিলাম। ভুল বা সঠিক নয় ছবিটি যা শুনেছি তা নিয়ে।

ভাবনা সুমাইয়া

প্রত্যেকেই বলে আপনি একজন প্রতিভাবান…

মণি রত্নম

(মৃদুহাসি) যখন আপনি জানবেন আপনি এমন কেবল একজন নন, আপনি এতে প্রভাবিত হবেন না। মানুষ তো অনেক কিছুই বলতে পারে। আমি জানি আমি কতটুকু সংগ্রাম করেছি… প্রত্যেক অবয়ব অর্জনে কিভাবে আসতে হয়েছে। গতকাল জাভেদ আখতারের সাথে দেখা হয়েছিল তিনি এটাকে খুব যথার্থ ব্যাখ্যা করেছেন, “আপনার কাজের মতো করে কোনকিছুই আপনাকে অতটা অবনমিত করতে পারবে না। তেমনি করে আপনাকে অতটা ব্যর্থ করতে পারবে না” আমি তার সাথে একমত।

5-mouna-ragam

ভাবনা সুমাইয়া

কী অদ্ভুত আপনার মেধার একজন পরিচালক আত্ম-সন্দেহ বোধ করছেন!

মণি রত্নম

কী অদ্ভুত আপনি এইভাবে প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন! বিমূঢ়তা ও সংগ্রাম প্রত্যেকটি সৃজনশীল প্রক্রিয়ার অংশ। আপনাকে অমসৃণ প্রান্তকে মসৃণ করতেই হবে। প্রস্ফুটন খুবই নিঃসঙ্গ এবং যন্ত্রণাদায়ক একটি প্রক্রিয়া।

ভাবনা সুমাইয়া

আপনার ছবি দেখে এটা মনে হয় না

মণি রত্নম

এই সান্ত্বনাদানের জন্য সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ। আপনি জানেন না, পর্দা বরং অধিকতর বিভ্রান্তিকর?

ভাবনা সুমাইয়া

একজন সফল পরিচালক হিসেবে কেমন বোধ করেন?

মণি রত্নম

সফল? শেষ ছবিটিই ভালো চলে নি এবং আমি এসব সমীকরণের সাথে বরাবরই অনভ্যস্ত। কখনো এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। হঠাৎ পাওয়ার উত্তেজনাটা দারুণ। রোজা এত বড় হিট হবে কেউ প্রত্যাশা করে নি।

ভাবনা সুমাইয়া

আপনি আপনার কাজ নিয়ে সন্তুষ্ট? আপনাকে যদি একই ছবি রিমেক করতে বলা হয়, আপনি এতে কি বদল আনতে চাইবেন?

মণি রত্নম

এটি অনুমানমূলক একটি প্রশ্ন। পরিবর্তন একটি গুরুতর শব্দ। আমি জানি না আমি কতটা পরিবর্তন করতে পারবো কিন্তু তাৎক্ষণিক পরিবর্তন আনা যেতেই পারে। এটা করতে গিয়ে আমাকে কিছু জিনিস হারাতে হবে… (সংকুচিত হয়ে)

ভাবনা সুমাইয়া

একটি ছবি নিয়ে প্রস্তুত হতে আপনার কেমন সময় লাগে?

মণি রত্নম

প্রায় এক বছর এবং এটি ছবির প্রাথমিক ধারণা থেকে সেটিকে পূর্ণতা দেয়া পর্যন্ত অন্তর্ভুক্ত। কখনো একটি ভাবনা অঙ্কুরিত হতেও অনেক সময় নেয়। এই ধরণের বিষয়গুলোর আরও বেশি উপস্থাপন যোগ্য হওয়া প্রয়োজন।

ভাবনা সুমাইয়া

এটা সত্যিই যে যতক্ষণ পর্যন্ত স্ক্রিপ্ট সম্পূর্ণ হচ্ছে না আপনি শুটিং শুরু করেন না

মণি রত্নম

মূলত আমি একটি সম্পূর্ণ স্ক্রিপ্টের উপর কাজ করতে চাই। কিন্তু সেটি কখনোই হয় না। ছবি তৈরির সময়, আপনার ভিন্ন চিন্তা আসবেই। এই তাৎক্ষণিক পরিবর্তন করাকে অগ্রাহ্য করা সম্ভব নয়। সাধারণত ৭৫ ভাগ কাজ শেষ হয়ে যায়, বাকি ২৫ ভাগ তার নিজের মতো করেই হয়। আমি সাধারণত আমার ছবি দুই বা তিন শিডিউলে শেষ করতে পারি এবং যদি না হয় তখন শিল্পীদের থেকে অতিরিক্ত সময় নেই। আমি হয়তো সবসময় আমার লক্ষ্যে পৌছতে পারি না কিন্তু আমি সবসময় আমার যাত্রা গন্তব্য জানি।

ভাবনা সুমাইয়া

আপনার সব ছবি থেকে, কোনটিকে সেরা বলবেন

মণি রত্নম

এটা বাছাই করা কঠিন এবং আমাকে বলতেই হবে আমি বিষয়গত হতে পারবো না। নায়াগান একটি আন্তরিক প্রচেষ্টা যেখানে সবকিছু যথাযথ ছিল। ছবির নায়কের প্রচন্ড শ্রম ছিল সেখানে। এটা সবসময়ই স্বস্তিদায়ক যখন একজন ভালো অভিনেতা দৃশ্যটি নিয়ে ভাবেন। এইভাবে দেখলে, দায়িত্ব কেবল পরিচালকের উপরই বর্তায় না।

1384115_524057221011279_1608045083_n

ভাবনা সুমাইয়া

অভিনেতা থেকে অধিক পরামর্শ কখনো হস্তক্ষেপ হয়ে যায়

মণি রত্নম

নতুন কোন আস্বাদন সবসময়ই আসতে পারে। আপনি যখন কম অভিনেতার সাথে কাজ করবেন তখন আপনাকে কম শ্রম ব্যয় করলেও চলবে। বাকিটুকু তখন শব্দ বা দৃশ্যায়ন তৈরিতে যোগ করতে পারেন। কমল হাসানের মতো কারো জন্য হস্তক্ষেপ করার প্রয়োজন নেই।

ভাবনা সুমাইয়া

আপনার সমালোচকরা আপনাকে আত্মকেন্দ্রী পরিচালক হিসেবে অভিহিত করেন। আপনি কি একমত?

মণি রত্নম

আমি কারো ক্যারিয়ার গড়তে বা গডফাদার হতে ছবি তৈরি করি না। নির্দ্বিধায় বলতে পারি। অভিনেতারা কাজ করতে সম্মত হবেন কি না সেটি সম্পূর্ণ তাদের ইচ্ছা। আমাদের সম্পর্ক পেশাদারী এবং দিনের শেষে, আমি বরং সৃজনশীল সন্তুষ্টি খুঁজি, কেবল এর সমাপ্তি না খুঁজে। আমি একজন ভালো পরিচালক হিসেবে স্বীকৃত ও সম্মানিত হতে চাই, একজন নায়ক বা নায়িকার প্রচার পরিচালক হিসেবে নয়।

ভাবনা সুমাইয়া

আপনার মতে পরিচালক হিসেবে আপনার শক্তিমত্তা কি?

মণি রত্নম

(কিছুক্ষণ চিন্তা করে) আমার একটি সামগ্রিক দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে যেটি ছবি তৈরির জন্য গুরুত্বপূর্ণ মনে করি। আমি এমন একজন নই যে কেবল কয়েকটি দৃশ্য নিয়ে একাগ্র হই বরং আমার একাগ্রতা পুরো স্ক্রিপ্টে থাকে। আমি যদি দর্শকের স্পন্দন জানতে পারতাম– কিন্তু আমার মনে হয় না আমি তা জানি। কিন্তু আমি আমার হৃদয়কে চিনি। এবং আমার মনকে জানি এবং সেই সত্ত্বাকে অনুসরণ করি। মিডিয়া আমাকে একজন জাদুকর বানিয়ে দিয়েছে কিন্তু আমি ব্যক্তিগতভাবে নিজেকে একজন গল্প-কথক হিসেবে দেখি। আপনি কি বলছেন এবং কিভাবে বলছেন সেটি কৌশল থেকেও বেশী গুরুত্বপূর্ণ। গল্পকে আপনি কিভাবে ভাঁজ করছেন বা এর জট খুলছেন এটাই সকল পার্থক্য করে দেয়।

9-title

সাক্ষাৎকারটি বম্বে ছবির মুক্তির আগে নেয়া

এই লেখাটি মূলত প্রকাশিত হয়েছিল বাংলামেইল২৪ ডট কমের জন্য। সেই লেখা পড়তে যেতে হবে এই লিংকে 

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s